Space For Rent

Space For Rent
মঙ্গলবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৪
প্রচ্ছদ » গ্যালারি
  দেখেছেন :   আপলোড তারিখ : 2014-08-26
বাংলাদেশের নেপাল বধ
ক্রীড়া প্রতিবেদক : গত সাফ ফুটবলেই নেপালের সঙ্গে হেরেছিল বাংলাদেশ। তবে বছরখানেক পর সেই নেপালের বিরুদ্ধেই বেশ আত্মবিশ্বাসী লাল-সবুজের দল। মঙ্গলবার আর্মি স্টেডিয়ামে প্রীতি ম্যাচে নেপালকে ১-০ গোলে পরাজিত করেছে মামুনুল বাহিনী। যদিও দলটি জাতীয় দল নয়, অনূর্ধ্ব-২৩। আগামী মাসেই দক্ষিণ কোরিয়ায় বসছে এশিয়ান গেমস। তারই প্রস্তুতি হিসেবে বেশ ভালোমতোই এগুচ্ছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল।
ইনজুরির কারণে দেশসেরা ফরোয়ার্ড এমিলি এবং জন্ডিসের কারণে মিঠুন চৌধুরী এশিয়ান গেমসের ফুটবলের অনুশীলন ক্যাম্প শুরুর আগেই সরে দাঁড়িয়েছেন। তাই অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দলে তিন জনের সিনিয়র কোটা থাকলেও সেই সুযোগ পাননি ডাচ কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফ। দল গড়তে তরুণদের ওপরই ভরসা রাখতে হয়েছে তাকে। এশিয়ান গেমসের আগে বিদেশি দলের বিপক্ষে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন তরুণ তুর্কিরা। ম্যাচের ৬০ মিনিটে বাংলাদেশের জয়সূচক একমাত্র গোলটি করেন ফরোয়ার্ড সোহেল রানা।
আর্মি স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে ছিলেন সোহেল-ওয়াহেদ-তকলিস-বাবুরা। ম্যাচের তিন মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ এসেছিল লাল-সবুজ শিবিরের। ডান প্রান্ত দিয়ে তকলিসের বাড়ানো বলে ফাঁকা পোস্টে শট নিতে পারেননি কেউ। সাত মিনিটে ডান প্রান্ত দিয়েই তকলিসের মাটি কামরানো শট পোস্ট ঘেঁষে চলে যায় মাঠের বাইরে। ১১ মিনিটে তপুর থ্রু বক্স থেকে হেড নিয়েছিলেন তকলিস। কিন্তু তার হেডে বল জাল খুঁজে পায়নি। ১৪ মিনিটে মিডফিল্ডার হেমন্ত ভিনসেন্ট একক প্রচেষ্টায় বল নিয়ে ঢুকে পড়েন নেপালের বিপদ সীমানায়। কিন্তু নেপাল গোলরক্ষক এলান নেওপানেকে একা পেয়েও ব্যর্থ হন হেমন্ত। তার শট চলে যায় পোস্টের অনেক বাইরে দিয়ে। ২১ মিনিটে ইয়াসিনের ক্রসে উড়ন্ত বলে হেড নিতে চেষ্টা করেছিলেন ফরোয়ার্ড ওয়াহেদ। মাথা ছোঁয়াতে পারলে হয়তো আসতে পারত গোল। কিন্তু তার আগেই বল তালুবন্দি করেন নেপাল কিপার। ৩০ মিনিটে গোলের প্রথম সুযোগ পেয়েছিল নেপাল। বাঁ প্রান্ত দিয়ে রবিনের ক্রসে বক্স থেকে ব্যাকভলি নেন অসীম জং। তার ব্যাকভলি হয় লক্ষ্যভ্রষ্ট। গোল শূন্যভাবে শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরু দিকেই সুযোগ কাজে লাগায় মামুনুল বাহিনী। ৬০ মিনিটে মামুনুলের কর্নার কিকে দক্ষতার সঙ্গে নেপালের জাল কাঁপান সোহেল রানা। পরে ঝাঁপিয়ে পড়েও বল নিজের আয়ত্তে নিতে পারেননি নেপালের গোলরক্ষক। ১-০ গোলে লিড নেয় বাংলাদেশ। ৭৫ মিনিটে গোল পরিশোধের সুযোগ পেয়েছিল নেপাল। বাঁ প্রান্ত দিয়ে বদলি মিডফিল্ডার হিমেনের শট গোলরক্ষক রাসেল মাহমুদ ফিস্ট করে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন। শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয় দিয়েই মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ। তবে এমন জয়েও খুশি নন জাতীয় দলের ডাচ কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফ। ম্যাচ শেষে তিনি বলেছেন, ‘দলের সবাই ভালো খেলেছে। তবে ম্যাচে খেলোয়াড়রা ৭৫ মিনিট পারফেক্ট খেলেছে। আরও ভালো খেলার যোগ্যতা ছিল তাদের। তবে সোহেল রানার গোলটা ছিল অসাধারণ।’
নেপালের বিপক্ষে আগামী ২৯ আগস্ট দ্বিতীয় প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দল। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে।
( ২৬ আগস্ট, ২০১৪)