Space For Rent

Space For Rent
মঙ্গলবার, ০২ সেপ্টেম্বর, ২০১৪
প্রচ্ছদ » গ্যালারি
  দেখেছেন :   আপলোড তারিখ : 2014-09-02
বোল্টের রেকর্ড অজেয়!
ক্রীড়া ডেস্ক : ভারতে প্রথম আগমন ঘটল জ্যামাইকান স্প্রিন্টার উসাইন বোল্টের। বিশ্বের দ্রুততম মানবকে নিয়ে দেশটিতে বেশ হইচই পড়ে গেছে। গতি তারকা ভারতের একটা প্রতিযোগিতায় নামেন। সেটি অবশ্য দৌড়বিদ নয়, ক্রিকেটার হিসাবে। গতকালই বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে টিম যুবরাজের বিরুদ্ধে মাঠে নামেন কিংবদন্তি স্প্রিন্টার উসাইন বোল্ট।
বোল্টের দখলে আছে ১০০ ও ২০০ মিটারের বিশ্বরেকর্ড। বার্লিনে ২০০৯ সালে ৯.৫৮ সেকেন্ডে ১০০ মিটার জিতে বিশ্বরেকর্ড করেছিলেন। এর মাঝে অনেকে ঝলকানি দিলেও কারও সাধ্যে সেই রেকর্ড ভাঙার সুযোগ হয়নি। বোল্ট মনে করেন ভবিষ্যতেও তার এই রেকর্ডটা অজেয় হয়ে থাকবে। ভারতে এসে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘রেকর্ড ভাঙা-গড়ার খেলা চলবেই? তবে আমার ১০০ মিটারের বিশ্বরেকর্ড ভাঙতে হলে একজন অ্যাথলেটকে কঠোর শ্রম দিতে হবে। তবেই সেটা সম্ভব? কিন্তু আমার মনে হয় এই রেকর্ড ধরা ছোঁয়ার বাইরে? বলা যায় ভাঙাটা অসম্ভব। সময়ের সেরা অ্যাথলেটদের মধ্যে এখন আছেন জাস্টিন গ্যাটলিন, টাইসন গে ও ইয়োহান ব্লেক। বোল্টের চিন্তায় সেসব নাম থাকলেও এটি জানিয়ে দিয়েছেন যে, কাউকে তার ওপর দিয়ে যেতে দেবেন না।
ট্র্যাক এন্ড ফিল্ডের বাইরে বোল্ট ফুটবল ও ক্রিকেটের প্রতি আগ্রহী। ফুটবল খেলতে গিয়েছিলেন ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। ফুটবল ছাড়াও জ্যামাইকান এই তারকার রয়েছে ক্রিকেটের প্রতি প্রবল আগ্রহ। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) খেলার জন্যও আগ্রহ ব্যক্ত করেছিলেন। সেই সুযোগ পূরণ না হলেও ভারতের মাটিতে ক্রিকেটটা ঠিকই খেলার সুযোগ পেলেন। তাও কি না যুবরাজের মতো অন্যতম সেরা অলরাউন্ডারের বিপক্ষে। এতোটা আসক্তি কিভাবে ক্রিকেটের প্রতি তৈরি হল? সে প্রশ্নের জবাবও মিলেছে বোল্টের কথায়। বলেন,‘ আমার বাবা ক্রিকেটের বড় ভক্ত? আমি যখন দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়ি তখন আমার সামনে দু’টো বিকল্প ছিল? ক্রিকেট আর অ্যাথলেটিক্সের মধ্যে যেকোনো একটা বাছতেই হতো? তবে বাবা আমাকে অ্যাথলেটিক্সে অংশ নিতে বলেছিলেন? তিনি বলতেন অ্যাথলেটিক্সে আমাকে শুধু জোরে দৌড়ালেই হবে? কিন্তু ক্রিকেটে সুযোগ পাওয়াটা কঠিন হয়ে যাবে? তাই ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডকেই বেছে নিয়েছিলাম?
(এইচআর/সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৪)