Space For Rent

Space For Rent
বুধবার, ০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৪
প্রচ্ছদ » জাতীয়
  দেখেছেন :   আপলোড তারিখ : 2014-09-03
বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফেরত পাঠাবে ভারত : স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
বর্তমান প্রতিবেদক : স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পালিয়ে থাকার ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট প্রমাণ দিতে পারলে ভারত তাদের ফেরত পাঠাবে। তিনি বলেন, খুনিদের আটক করে ফেরত পাঠানো হবে বলে ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব জানিয়েছেন। আমরা বিভিন্ন সময় জানিয়েছি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনিরা ভারতে পালিয়ে আছে; কিন্তু বঙ্গবন্ধুর খুনিদের খুঁজে পাচ্ছে না ভারত সরকার।
বুধবার বিকালে সচিবালয়ে ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব অনিল গোস্বামীর সঙ্গে বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ সব কথা বলেন।  
স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানান, সারদা পুলিশ একাডেমির সংস্কার ও অবকাঠামো উন্নয়নে আগ্রহ দেখিয়েছে ভারত। তারা এ বিষয়ে বাংলাদেশকে যে কোনো সহায়তা দিতে প্রস্তুত। এ জন্য ভারতের পক্ষ থেকে একটি প্রস্তাবনাও দেয়া হয়েছে। প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, সারদা এশিয়ার ঐতিহ্যবাহী একটি পুলিশ একাডেমি। ভারত এটির সংস্কার ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে ভারত সব ধরনের সহায়তা দিতে চায়।
স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, আনসার, বিজিবি, কোস্টগার্ড সদস্যদের আধুনিক প্রশিক্ষণের সুযোগদানেও ভারত আগ্রহ দেখিয়েছে।
আসাদুজ্জামান খান বলেন, ভারতের প্রস্তাবগুলো ভেবে দেখা হবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রশিক্ষণের ব্যাপারে ইঙ্গিত দিলেই ভারত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।
এর আগে বুধবার দুপুরে হোটেল সোনারগাঁয়ে দুই দেশের সচিব পর্যায়ের বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্র সচিব মোজাম্মেল হক খান সাংবাদিকদের জানান, বাংলাদেশে কারাবন্দি উলফার নেতা অনুপ চেটিয়াকে ভারতে পাঠানো হবে। এ জন্য বাংলাদেশ সরকার প্রস্তুতিও নিয়েছে। অন্যদিকে নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের মামলায় আটক নূর হোসেনসহ অন্য অপরাধীদের ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভারত।
সচিব বলেন, অনুপ চেটিয়া বাংলাদেশ সরকারের কাছে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছিল। এখন তিনি ভারতে ফেরত যেতে চান। বৈঠকে এ বিষয়টি আমরা উপস্থাপন করেছি। নূর হোসেনকে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনুপ চেটিয়া ও নূর হোসেনের বিষয় সম্পূর্ণ ভিন্ন হলেও, তারা যথাযথ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নূর হোসেনসহ অন্য যে অপরাধীরা ভারতে রয়েছে তাদের ফেরত দিতে আগ্রহ দেখিয়েছে।
বৈঠকে স্থল সীমান্ত চুক্তি, সীমান্ত হত্যা, সীমান্ত চোরাচালান, মাদক পাচার, নারী ও শিশু পাচার বন্ধসহ বিভিন্ন বিষয়ে আন্তরিক পরিবেশে আলোচনা হয়েছে বলে জানান তিনি।
(সেপ্টেম্বর ০৩, ২০১৪)