Space For Rent

Space For Rent
রবিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৪
প্রচ্ছদ » জাতীয়
  দেখেছেন :   আপলোড তারিখ : 2014-09-07
অভিশংসন হবে না রায়ের জন্য : আইনমন্ত্রী
বর্তমান প্রতিবেদক : সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনের মাধ্যমে বিচারপতিদের হাত-পা বেঁধে দেয়া হচ্ছে বলে বিএনপির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আশ্বস্ত করেছেন, বিচারের জন্য কোনো বিচারপতিকে অভিশংসনের মুখোমুখি হতে হবে না।

বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষমতা আইনসভার হাতে ফিরিয়ে দিতে রবিবার সংসদে বিল উত্থাপনের আগে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের একথা বলেন মন্ত্রী।

১৯৭২ সালে সংবিধান প্রণয়নের সময় এর ৯৬ অনুচ্ছেদের বলে উচ্চ আদালতের বিচারকদের পদের মেয়াদ নির্ধারণ ও তাদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদের হাতে ছিল। এর দুই বছর পর ১৯৭৫ সালে সংবিধানের চতুর্থ সংশোধনীর (বাকশাল গঠন) মাধ্যমে বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষমতা রাষ্ট্রপতির হাতে ন্যস্ত হয়।

চতুর্থ সংশোধনী বাতিল হলে জিয়াউর রহমানের সামরিক সরকারের আমলে এক সামরিক আদেশে বিচারপতিদের অভিশংসনের জন্য সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠন করা হয়। এখন পর্যন্ত তা-ই বলবত্ রয়েছে। ওই আইন সংশোধন করে সংসদের হাতে বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষমতা ফিরিয়ে দিতে ষোড়শ সংশোধন হচ্ছে।    

রবিবার সংসদে যাওয়ার আগে বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে একটি অনুষ্ঠান শেষে এ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে পড়েন আইনমন্ত্রী।

আনিসুল হক বলেন, বিচারপতিদের রায়ের সঙ্গে অভিশংসনের কোনো সম্পর্ক নেই। রায়ের জন্য তারা অভিশংসনের মুখোমুখি হবেন না। সংসদ কর্তৃক অভিশংসন ব্যবস্থায় বিচারকদের স্বাধীনতা এক বিন্দুও ক্ষুণ্ন হবে না। কেবল বড় ধরনের অসদাচরণ ও অযোগ্যতার অভিযোগ প্রমাণ হলেই বিচারপতিরা অভিশংসনের সম্মুখীন হবেন; অন্য কোনো কারণে নয়। অভিশংসনের যাতে অপব্যবহার না হয়, আইনটি সেভাবেই প্রণয়ন করা হবে।

জেলা ও দায়রা জজ সমপর্যায়ের বিশেষ জজ ও জুডিশিয়াল কর্মকর্তাদের সপ্তাহব্যাপী প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

(সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৪)