Space For Rent

Space For Rent
মঙ্গলবার, ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৪
প্রচ্ছদ » সারাদেশ
  দেখেছেন :   আপলোড তারিখ : 2014-09-09
না.গঞ্জে রাজউকের ৫৮ প্লট পরিদর্শন
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ শহরে রাজউকের মালিকানাধীন ৫৮টি প্লট পরিদর্শনে এসেছিলেন রাজউকের ১৫ সদস্যের একটি টিম।
মঙ্গলবার দুপুরে রাজউকের পরিচালক (স্টেট) নাজমুল শাহাদাতের নেতৃত্বে ওই টিমটি শহরের বিভিন্ন এলাকায় রাজউকের মালিকানাধীন বিরোধপূর্ণ জমি ও স্থাপনা পরিদর্শন করেন। ওই সময় রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শহীদুল ইসলামও উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে রাজউকের এই পরিদর্শনকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে মন্তব্য করেছেন নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত্ আইভী। মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে শহরের নবাব সলিমুল্লাহ সড়কে অবস্থিত মাধবী প্লাজা পরিদর্শন করেন রাজউকের টিমটি। এ সময় তারা বহুতল ভবনটির আন্ডারগ্রাউন্ডে কার পার্কিং স্পেসে গড়ে ওঠা আড্ডা নামের ফাস্টফুড পরিদর্শন করে এর মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন। রাজউকের কর্মকর্তারা বিভিন্ন বিষয়ে খোঁজখবর নেন এবং কার পার্কিং স্পেসে ফাস্টফুড ভাড়া নেয়ার যৌক্তিকতা সম্পর্কে জানতে চান। প্রত্যুত্তরে ফাস্টফুডটির অংশীদার খোকন জানান, কার পার্কিং স্পেসটি ত্রুটিপূর্ণ হওয়ায় নাসিক কর্তৃপক্ষ এখানে গাড়ি রাখার স্পেস করতে পারেনি বলে তিনি শুনেছেন। তবে এ বিষয়ে সিটি করপোরেশনই ভালো বলতে পারবে। এ সময় রাজউকের কর্মকর্তারা তাকে দ্রুত ফাস্টফুডটি অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার আহ্বান জানান। পরে রাজউকের কর্মকর্তারা চাষাঢ়া সান্ত্বনা মার্কেট সংলগ্ন আল জয়নালের নির্মাণাধীন বহুতল ভবন, খাজা সুপার মার্কেট সংলগ্ন প্লট, হকার্স মার্কেট, বিবি রোডস্থ বিভিন্ন বহুতল ভবন পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে রাজউকের পরিচালক (স্টেট) নাজমুল শাহাদাত জানান, নারায়ণগঞ্জে রাজউকের মালিকানাধীন ৫৮টি প্লট রয়েছে। এর মধ্যে অনেকগুলো নিয়ে মামলা রয়েছে। বেশ কয়েকটি প্লটের বিষয়ে উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশ রয়েছে। রাজউকের প্লটগুলো কী অবস্থায় আছে তা জানতে পরিদর্শনে এসেছি।
পরিদর্শনে আসা এক কর্মকর্তা জানান, মাধবী প্লাজা ও আশপাশের এলাকায় রাজউকের ৩১ শতাংশ জমি রয়েছে। এর মধ্যে সর্বশেষ রেকর্ডে ৫ শতাংশ সিটি করপোরেশনের নামে ও ৫ শতাংশ আলী আক্কাস নামের এক ব্যক্তির নামে রেকর্ডভুক্ত হয়েছে।
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত্ আইভী জানান, রাজউক একটি পক্ষের হয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে পরিদর্শনে এসেছে। তারা আমাদের কিছু জানায়নি। পূর্ত মন্ত্রণালয়ের থেকে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছিল এ ধরনের সমস্যা নিরসনের জন্য। কিন্তু ওই কমিটিও এ বিষয়ে কিছু জানে না। রাজউকের টিম আজকে পরিদর্শনে এসেছে ওই কমিটিকে পাশ কাটিয়ে। এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জে রাজউকের অনুমোদিত অনেকগুলো বহুতল ভবনের নিচতলায় দোকান, রেস্টুরেন্ট ও ক্লিনিক রয়েছে। অথচ রাজউকের টিম সেগুলো পরিদর্শনে যায়নি। এতেই প্রমাণিত হয় তাদের সফর ছিল উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।
(সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৪)