Space For Rent

Space For Rent
মঙ্গলবার, ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৪
প্রচ্ছদ » সারাদেশ
  দেখেছেন :   আপলোড তারিখ : 2014-09-09
গাজীপুরে ৩০ কোটি টাকার তার জব্দ, আটক ১৩
গাজীপুর প্রতিনিধি : পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেডের (পিজিসিবি) এক শ্রেণির কর্মকর্তার যোগসাজশে চুরি হয়ে যাচ্ছে বিপুল পরিমাণ অ্যালুমিনিয়ামের তার। চোরচক্রটি দীর্ঘদিন ধরে এ তার চুরি করে তা গলিয়ে বাজারে চড়াদামে বিক্রি করছে।  মঙ্গলবার ভোরে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে আটক করেছে এ চক্রের ১৩ সদস্যকে। জব্দ করা হয়েছে ৩০ কোটি টাকার বেশি মূল্যের বিপুল পরিমাণ তার।  
র‌্যাব জানায়, গাজীপুরের কোনাবাড়ী বাইমাইল এলাকার ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের পাশে সীমানা প্রাচীর বেষ্টনীর ভিতরে পিজিসিবির নামে কোরিয়া থেকে আমদানি করা তারের ড্রাম থেকে তার চুরি করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব অভিযান চালায়। এ সময় বিপুল পরিমাণ তার, তার বহনকারী তিনটি ট্রাক ও একটি ক্রেন জব্দ করা হয়। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে আটক করা হয় ১৩ জনকে। আটকরা হলেন হাবিবুল্লাহ, নূরুল ইসলাম, আয়ুব আলী, মোবারক, মাইনুদ্দিন, আয়েদউল্লাহ, হোসেন, আল্লা হোসেন, সুমন, দিদার, কাউছার, জাহাঙ্গীর, লিটন। কারখানা ম্যানেজারসহ পালিয়ে যান বেশ কয়েকজন। ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন র‌্যাবের সিইও লে. কর্নেল তুহিন মোহাম্মদ মাসুদসহ র‌্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।
র‌্যাব-১-এর সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান জানান, চট্টগ্রাম বন্দরে আমদানির পর তারগুলো ট্রাকযোগে কোনাবাড়ীতে আনা হতো। চোরচক্র তারের বড় ড্রামগুলো নামিয়ে  ড্রাম থেকে  চুরি করত। চক্রটির হোতা ঢাকার গোলাম মাওলা কায়েস ও তার সহযোগীরা ৬ বছর ধরে আমদানি করা এসব তারের ড্রাম খুলে প্রতি ড্রাম থেকে ১৮শ কেজি তার কেটে রেখে দিত। পরে ওই তারের ড্রামটি আবার সিলগালা করে তার ভর্তি ড্রামগুলো পিজিসিবি অফিসে পাঠানো হতো।
এসব চোরাই তার গ্যাসের চুল্লিতে গলিয়ে অ্যালুমিনিয়ামের বার তৈরি করে বিভিন্ন কারখানায় বিক্রি করে আসছিল চক্রটি। চোরাই এ তারগুলো যে পিজিসিবির, তা নিশ্চিত করেছেন প্রতিষ্ঠানটির এক কর্মকর্তা।
কবিরপুর ১৩২/৩৩ কেভি গ্রিড উপকেন্দ্রের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী শাখাওয়াত হোসেন জানান, বিবিয়ানা-কালিয়াকৈর সঞ্চালন লাইনের জন্য কোরিয়া থেকে এসব তার আমদানি করা হয়। চোরাই এসব তারের মূল্য ৩০ কোটি টাকা বলে জানান তিনি।
তবে কালিয়াকৈর গ্রিডের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী কামরুল ইসলাম জানান, বিবিয়ানা কালিয়াকৈর ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইনের ১৬৮ কিলোমিটারের জন্য তার আমদানি করা হয়। এ প্রকল্পের জন্য জিএস কোরিয়া নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দেয়া হয়। সঞ্চালন লাইনের জন্য তার কম পড়লে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সেটি দেখভাল করবে। আমাদের করণীয় কিছু নেই।   
(সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৪)