Space For Rent

Space For Rent
মঙ্গলবার, ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৪
প্রচ্ছদ » জাতীয়
  দেখেছেন :   আপলোড তারিখ : 2014-09-09
বারকাতের বক্তব্য নিয়ে মন্তব্যের ইচ্ছেই হয় না : অর্থমন্ত্রী
বর্তমান প্রতিবেদক : রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সিএসআর (করপোরেট সোশ্যাল রেসপন্সিবিলিটি) কার্যক্রম এবং এর অর্থ খরচ করা নিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ও জনতা ব্যাংকের সদ্যবিদায়ী চেয়ারম্যান ড. আবুল বারকাতের মধ্যে এক ধরনের বাহাস শুরু হয়েছে।
মঙ্গলবার সচিবালয়ে মাল্টি-পারপাস ফান্ড বিষয়ক এক বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, উনি (বারকাত) যেটা বলেছেন, আমার মনেও নেই। আমার মনে হয় পাঁচ বছর তাকে রেখেছি, যথেষ্ট। তার মন্তব্যের ওপরে কোনো ধরনের মন্তব্য করতে আমার ইচ্ছেই হয় না। এর আগে গত সোমবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সিএসআর কার্যক্রম নিয়ে ড. আবুল বারকাতের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।
আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আমার অফিস বলছে, এ রকম কোনো রেকর্ড তারা পায়নি। আবুল বারকাতের উদ্দেশে তিনি বলেন, তার টার্ম শেষ হয়েছে। রিনিউ করা হবে না। সে জন্য তার দুঃখ থাকলে থাকতে পারে। অর্থমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগের সমর্থক লোকজন এবং তাদের মধ্যে ‘ইনটেলেকচুয়াল জায়ান্ট’ অনেকেই আছেন। তাদের আমাদের দেখাশোনা করতে হয়। একজন চেয়ারম্যান অব দ্য বোর্ড অনন্তকাল থাকবেন না।
সিএসআর কেন বন্ধ করা হলো— সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, কিছু ব্যাংকের বোর্ডের (পরিষদ) টার্ম শেষ হয়ে যাচ্ছিল। এ সময় একটা প্রবণতা দেখলাম। সেটা হলো সিএসআরে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করা। এ জন্য সবার সিএসআর বন্ধ করা হয়েছে।
এর আগে গত সোমবার রাজধানীর বাসাবোতে জনতা ব্যাংক-বারডেম ইব্রাহিম নার্সিং কলেজ ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে জনতা ব্যাংকের বিদায়ী চেয়ারম্যান ড. আবুল বারকাত বলেছেন, ‘জনতা ব্যাংকের সিএসআর কার্যক্রম স্থগিত করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত নির্বুদ্ধিতার পরিচয় দিয়েছেন।’
(এইচআর/সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৪)