আবারও বরফ জমছে ট্রাম্প-পুতিন সম্পর্কে
Published : Tuesday, 1 August, 2017 at 8:42 PM, Count : 229
আবারও বরফ জমছে ট্রাম্প-পুতিন সম্পর্কেবর্তমান ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সম্পর্কের ক্ষণস্থায়ী উষ্ণতা হারিয়ে আবার বরফ জমছে। গত রোববার আমেরিকাকে কড়া বার্তা দেন পুতিন। রাশিয়ায় বসবাসকারী ৭৫৫ জন মার্কিন কূটনীতিবিদদের দেশ থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট। সম্প্রতি, রাশিয়া, ইরান ও উত্তর কোরিয়ার উপর একাধিক আর্থিক নিষেধাজ্ঞা জারি করে আমেরিকা। এদিন তারই প্রত্যুত্তর দিল মস্কো। বেশ কিছুদিন ধরেই একাধিক ইস্যুতে টানাপড়েন চলছে মস্কো ও ওয়াশিংটনের মধ্যে। এই মুহূর্তে আমেরিকায় রয়েছেন ৪৫৫ জন রুশ কূটনীতিবিদ। সে তুলনায় রাশিয়ায় রয়েছেন প্রায় ১ হাজার মার্কিন কূটনীতিবিদ। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় দাবি জানিয়েছে, সমতা ফেরাতে অতিরিক্ত কূটনীতিবিদদের সরিয়ে নিক আমেরিকা। এ বছরের সেপ্টম্বরের মধ্যেই এই কাজ করতে হবে এবং রাশিয়ায় মাত্র ৪৫৫ জন মার্কিন কূটনীতিবিদদের থাকতে দেওয়া হবে। সম্প্রতি ‘জড়ংংরধ-২৪’ নামের এক সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাত্কার দেন ভ্লাদিমির পুতিন। ওই সাক্ষাত্কারে তিনি জানিয়েছেন, মার্কিন দূতাবাস ও কনস্যুলেটগুলোতে কর্মরত রয়েছেন প্রায় ১ হাজার মার্কিন কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে ৭৫৫ জনকে রাশিয়া ছাড়তে হবে। অদূর ভবিষ্যতে মস্কো-ওয়াশিংটনের সম্পর্কে উন্নতির আশা নেই বলেও মন্তব্য করেন পুতিন।পুতিনের বক্তব্য, আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে আমরা অনেক অপেক্ষা করেছি। তবে অদূর ভবিষ্যতে ইতিবাচক সম্পর্কের কোনও আশা দেখা যাচ্ছে না।
ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসায় মস্কো-ওয়াশিংটন সম্পর্কে বরফ গলবে বলেই মনে করেছিলেন অনেকেই। একই সঙ্গে অভিযোগ উঠেছিল মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পকে জেতাতে কলকাঠি নেড়েছিল মস্কো। ক্রিমিয়া দখল করা ও প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নাক গলানোর অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার মস্কোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার জন্য একটি বিল পাশ করে মার্কিন সিনেট। তারপরই গত শুক্রবার, মার্কিন কূটনীতিবিদের সংখ্যা কমিয়ে ৪৫৫ করার দাবি জানায় রাশিয়া। গতবছর তত্কালীন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা আমেরিকার মাটিতে রুশ দূতাবাসের দুটি কার্যালয় বন্ধ করে দেন। তিনি অভিযোগ জানিয়েছিলেন যে, ওই কার্যালয়গুলোকে ব্যবহার করত রুশ গুপ্তচর সংস্থা। সেখান থেকে মার্কিন সেনা সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ নথি পাচার করা হতো মস্কোতে। সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে আবার ঠাণ্ডা লড়াইয়ের দিকেই এগোচ্ছে দুই মহাশক্তি, মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।
রাশিয়ার সঙ্গে ছেলের বৈঠক মিথ্যা: ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে রুশ আইনজীবীর সঙ্গে গোপন বৈঠক সম্পর্কে ট্রাম্প জুনিয়র কৈফিয়ত হিসেবে একটি সত্য বিবৃতি দিতে চাইলেও তার বদলে ট্রাম্পের নির্দেশে বিবৃতিতে মিথ্যা কারণ উল্লেখ করা হয়েছে বলে দাবি করেছে বেশ কয়েকটি শীর্ষস্থানীয় মার্কিন ও পশ্চিমা গণমাধ্যম। সংবাদ প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের লেখানো ওই বিবৃতিতে ২০১৬ সালের জুনে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র এবং আইনজীবী ন্যাটালিয়া ভেসেলনিটস্কায়ার বৈঠকের কারণ হিসেবে বলা হয়েছিল, তারা মূলত রাশিয়া থেকে শিশু দত্তক নেয়ার ব্যাপারে আলোচনা করেছিলেন।
পরে অবশ্য জুনিয়র স্বীকার করেন, তত্কালীন ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের অবস্থান ধসিয়ে দেয়ার মতো তথ্য-প্রমাণ পাওয়া যাবে, এ খবর পেয়েই তিনি ন্যাটালিয়ার সঙ্গে দেখা করতে রাজি হয়েছিলেন। ওয়াশিংটন পোস্টে প্রথম এ নিয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, গোপন বৈঠক সম্পর্কে ছেলের লিখিত বিবৃতিটি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিজেই বলে দিয়েছিলেন। এ দাবির পক্ষে প্রমাণ হিসেবে পত্রিকাটি বৈঠক সম্পর্কে সরাসরি জানতেন এমন বেশ কয়েকজন ব্যক্তির সূত্র দিয়েছে। এরপর এবিসি নিউজ সিনিয়র পর্যায়ের দুজন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বরাতে খবরটি নিশ্চিত করে। ওয়াশিংটন পোস্ট জানায়, প্রাথমিকভাবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের উপদেষ্টারা ঠিক করেছিলেন, ট্রাম্প জুনিয়র একটি সত্যনির্ভর বিবৃতি দেবেন যেন পরে বৈঠকের বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ পেলেও ওই বিবৃতিকে মিথ্যা দাবি না করা যায়। কিন্তু জি২০ সম্মেলন শেষে ৮ জুলাই জার্মানি থেকে প্রেসিডেন্ট দেশে ফিরলে এই সিদ্ধান্ত পাল্টে যায়। তিনি বিবৃতিতে লেখান, রুশ শিশু দত্তক নেয়া বিষয়ে একটি কর্মসূচি নিয়েই মূলত আলোচনা করেছিলেন জুনিয়র এবং ন্যাটালিয়া, নির্বাচনী প্রচারণা নিয়ে নয়।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, উপদেষ্টা সম্পাদক: স্বপন কুমার সাহা।
সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : মুন গ্রুপ, লেভেল-১৭, সানমুন স্টার টাওয়ার ৩৭ দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।, ফোন: ০২-৯৫৮৪১২৪-৫, ফ্যাক্স: ৯৫৮৪১২৩
ওয়েবসাইট : www.dailybartoman.com ই-মেইল : news.bartoman@gmail.com, bartamandhaka@gmail.com
Developed & Maintainance by i2soft