বিরতি আমার প্রাপ্য
- সাকিব আল হাসান
Published : Tuesday, 12 September, 2017 at 9:31 PM, Count : 331
বিরতি আমার প্রাপ্যক্রীড়া প্রতিবেদক : টেস্ট থেকে বিশ্রাম চেয়েছিলেন ৬ মাসের। পেয়েছেন একটি টেস্ট সিরিজে। সেটা নিয়েও চলছে তোলপাড়। চারপাশে বিস্ময়ের ঝড়, জমছে প্রশ্নের পাহাড়। সেই প্রশ্নগুলোর সামনে দাঁড়িয়ে সাকিব আল হাসান ব্যাখ্যা করলেন নিজের অবস্থান। সাদা পোশাকে আপাতত বিশ্রামে থাকতে চেয়েছেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশ দলের সেরা এই তারকা কেন এমনটি করলেন তা নিয়ে শুরু থেকেই ছিল নানা আলোচনা। বিসিবির কাছে পাঠানো আবেদন পত্রে স্পষ্ট করেই বলেছেন ক্লান্তির জন্যই আপাতত লংগার ভার্সনে খেলতে চান না তিনি। সেই সাকিব আল হাসানই মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে কথা বললেন। বনানীতে নিজের বাসায় নিজের মুখেই জানালেন কেন সাময়িক বিশ্রাম নিচ্ছেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার, ‘আসলে মানসিকভাবে ফুরফুরে না থাকলে খেলার কোনো মানেই হয় না। টেস্টে চার ইনিংসে আমাকে ব্যাট ও বল হাতে কিছু দায়িত্ব পালন করতে হয়। তাই সেটা ঠিক ভাবে করতে হলে বিশ্রামটা জরুরি ছিল।’
সামনেই দক্ষিণ আফ্রিকা সফর। এই অবস্থায় সাকিবের না থাকা শূন্যতা তৈরি করবে বলেই মনে করেন অনেকে। অবশ্য এসব নিয়ে সাকিবের ভাবনা ভিন্ন, ‘কারও জন্যই কিছু আটকে থাকে না। আশা করি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যারা সুযোগ পেয়েছে সবাই ভালো করবে।’
আপাতত টেস্ট থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বিশ্রাম থাকলেও সাকিবের ইচ্ছা সবার শেষেই লংগার ভার্সনের খেলা ছাড়ার। আর দীর্ঘ সময় খেলতে চান বলেই এই বিশ্রাম, ‘আমি ইচ্ছা সবার শেষে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিবো। তার আগে টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে থেকে অবসর নিবো। কারণ আমি আরও ৫-৬ বছর ক্রিকেট খেলতে চাই। আর এই চাওয়াটা বাস্তবায়নের জন্য এই বিশ্রামের প্রয়োজন ছিল। আমার আবেদনে সাড়া দেওয়ায় বিসিবিকে ধন্যবাদ।’
সাকিব বিশ্রাম চেয়েছিলেন ৬ মাস। কিন্তু বোর্ডে তাকে ছুটি দিয়েছে তিন মাসের। সেই বিষয়টি জানিয়ে সাকিব আরও বলেন, ‘তিন মাসের বিশ্রামের পরই ফিরবো। আশা করি চনমনে হয়ে ফিরতে পারবো। এই অবসর সময়টাতে পরিবার সঙ্গে সময় কাটিয়ে নিজেকে ফুরফুরে করবো।’
নিজের শারীরিক অবস্থার কথা জানিয়ে সাকিব বলেন, ‘আমি বুঝি, আমার শরীর কী চায়। আমার এই বিশ্রামের সিদ্ধান্তের বিষয়ে হয়তো অনেক প্রশ্ন উঠেছে। এটার পক্ষে বিপক্ষে মতামত থাকতেই পারে। হয়তো আছেও। তবে আমি জেনে-বুঝেই বিশ্রামে যাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ধন্যবাদ বিসিবিকে, আমাকে বোঝার জন্য এবং আমার ওপর বিশ্বাস রাখার জন্য।’ এ সময় সাকিবের কাছে প্রশ্ন করা হয়, আপনার এভাবে বিশ্রাম চাওয়ার বিষয়টি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে একটা সংস্কৃতিতে পরিণত হবে কি-না? জবাবে সাকিব বলেন, ‘না আমি এটা মনে করি না।’ এর আগে সোমবার সাকিব তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে বিশ্রাম সম্পর্কে নিজের বক্তব্য তুলে ধরে ভক্তদের উদ্দেশ্যে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। তবে ছুটির বিষয়ে আজই প্রথম গণমাধ্যমের মুখোমুখি হলেন তিনি।
কয়েকদিন ধরেই ক্রিকেট দুনিয়ার অন্যতম আলোচিত বিষয় ছিল, টেস্ট ক্রিকেট থেকে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের ছয় মাসের ছুটি চাওয়ার বিষয়টি। সাকিব ছয় মাসের ছুটি আবেদন করলেও বিসিবি তাকে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের দুই টেস্টের জন্যই কেবল ছুটি দিয়েছেন। তবে বোর্ডের নির্বাচকরা জানিয়ে দিয়েছেন, সাকিব চাইলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে খেলতে পারবেন তিনি। এসব বিষয় নিয়ে যখন চলছে তর্ক-বিতর্কের ঝড়, তখনই মুখ খুললেন সাকিব । আর জানালেন, দলকে দীর্ঘ সময় ধরে সার্ভিস দেয়ার জন্যই আমার এমন সিদ্ধান্ত।
সাকিব নিজের ভবিষ্যতের কথা ভেবেও এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘আমি জেনে বুঝেই সিদ্ধান্তটা নিয়েছি, আমার ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে। ধন্যবাদ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে যে, তারা আমাকে বুঝতে পেরেছেন।’ সাকিব বিশ্রামে থাকলেও তার অভাববোধ করবে দল। যার প্রমাণ মেলে দল ঘোষণার সময় প্রধান নির্বাচকের বক্তব্যে। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেছিলেন, ‘সাকিব না থাকায় দল ব্যাকফুটে থাকবে। তার অভাববোধ হবে; কিন্তু কি আর করা? সে বিশ্রাম চেয়ে ছুটি চেয়েছে। বোর্ডও ছুটি মঞ্জুর করেছে। তাই তাকে ১৫ জনের দলে রাখা হয়নি। তবে সাকিব চাইলে দ্বিতীয় টেস্টেই দলে ফিরতে পারবে।’


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, উপদেষ্টা সম্পাদক : স্বপন কুমার সাহা, নির্বাহী সম্পাদক: নজমূল হক সরকার।
সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : মুন গ্রুপ, লেভেল-১৭, সানমুন স্টার টাওয়ার ৩৭ দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।, ফোন: ০২-৯৫৮৪১২৪-৫, ফ্যাক্স: ৯৫৮৪১২৩
ওয়েবসাইট : www.dailybartoman.com ই-মেইল : news.bartoman@gmail.com, bartamandhaka@gmail.com
Developed & Maintainance by i2soft