তালায় একটি সেতুর অভাবে কয়েক গ্রামবাসীর দুর্ভোগ
Published : Sunday, 3 December, 2017 at 9:15 PM, Count : 75

তালায় একটি সেতুর অভাবে কয়েক গ্রামবাসীর দুর্ভোগসাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার তালায় একটি সেতুর অভাবে কয়েক গ্রামের মানুষ যাতায়াতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। বিশেষ করে স্কুল ও মাদরাসা শিক্ষার্থীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাঁশের সাঁকো দিয়ে প্রতিদিন পারাপার হচ্ছে। উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের দেওয়ানীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সোনার বাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও দেওয়ানীপাড়া দাখিল মাদরাসার খরাইল, ভবানীপুর, কাজীডাঙ্গা এবং উত্তরঘোনা গ্রামের শিক্ষার্থীরা ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকোর ওপর দিয়ে পার হয়ে আসছে শিক্ষাগ্রহণের জন্য। একই গ্রামের সাধারণ মানুষও বাজার করার জন্য ঝুঁকি নিয়ে আসছে। এমনিতেই এলাকাটি বছরের ৬ থেকে ৭ মাস জলাবদ্ধ থাকে, রাস্তাঘাট বৃষ্টির মৌসুমে পানির নিচে তলিয়ে যায়। তার পর ঝুঁকি নিয়ে খালপার হতে হয় বাঁশের সাঁকোর ওপর দিয়ে।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার দেওয়ানীপাড়া গ্রামের তিনটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ একটি বাজার আছে। যেখানে সকাল বিকেল বাজার করতে আসা শতশত মানুষের যেমন দুর্ভোগ তেমনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদেরও চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়। ১৯৯৫ সালে বাঁশের সাঁকোটি নির্মিত হয়ে অদ্যবধি চলছে। আজও তার কোনো সুনির্দিষ্ট সমাধান হয়নি। এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীদের প্রাণের দাবি খালের ওপর একটি বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করলে শিক্ষার্থীসহ সর্বসাধারণের চলাচলের সুযোগ হবে। স্থানীয় সোনার বাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হুমায়ুন কবির খান বলেন, স্কুলটি উপজেলার তিনটি ইউনিয়নের সীমানায়। এ স্কুলে লেখাপড়া করে একটি অবহেলিত জনগোষ্ঠীর সন্তানরা। এলাকাটি অত্যন্ত অবহেলিত জনপদ। এখানে চলাচলের চরম দুর্ভোগ। বাচ্চারা স্কুলে আসতে গেলে প্রতিনিয়ত বাঁশের সাঁকো পার হতে দুর্ঘটনার স্বীকার হয়। সুন্দর জনপদ ও খালের ওপর দিয়ে কোমলমতি শিশুরা যেন নিরাপদে পার হয়ে স্কুলে আসতে পারে সে ব্যাপারে বর্তমান সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তেঁতুলিয়া ইউপি সদস্য সেকেন্দার মোড়ল বলেন, ২২ বছর আগে তার জমির ওপর দিয়ে বাঁশের সাঁকো তৈরি করা হয়েছিল। এত বছরেও এর পরিবর্তে ব্রিজ নির্মাণ হয়নি। তারা বিভিন্ন দফতরে আবেদন করেছেন একটি বেইলি ব্রিজের জন্য, কিন্তু এখনও কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। মাঝে মধ্যে শিক্ষার্থী এবং বড় মানুষও দুর্ঘটনার শিকার হন। বর্তমান সরকার যদি খালের ওপর একটি বেইলি ব্রিজ করেন তাহলে এলাকার হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগের পরিত্রাণ হবে। সোনার বাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি আলতাফ হোসেন বলেন, বাঁশের সাঁকো পার হতে গিয়ে প্রতিনিয়ত স্কুল শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ দুর্ঘটনার স্বীকার হচ্ছে। গত বছর এমপি সাহেব সরেজমিন এসে দেখে গেছেন এবং পিআইও সাহেব বরাবর আবেদন করার কথা বলেছিলেন, কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো সমাধান তারা পাননি।  তেঁতুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সরদার রফিকুল ইসলাম বলেন, বিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষক তাকে বিষয়টি অবহিত করেননি। তবে তিনি আপাতত শিক্ষার্থীসহ সবাইকে চলাচলের একটি ব্যবস্থা করে দেবেন। উপজেলা চেয়ারম্যান ঘোষ সনত্ কুমার বলেন, বিষয়টি তার জানা নেই, তবে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বিষয়টি দেখে একটি স্টিমেট দিলে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, উপদেষ্টা সম্পাদক : স্বপন কুমার সাহা, নির্বাহী সম্পাদক: নজমূল হক সরকার।
সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : মুন গ্রুপ, লেভেল-১৭, সানমুন স্টার টাওয়ার ৩৭ দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।, ফোন: ০২-৯৫৮৪১২৪-৫, ফ্যাক্স: ৯৫৮৪১২৩
ওয়েবসাইট : www.dailybartoman.com ই-মেইল : news.bartoman@gmail.com, bartamandhaka@gmail.com
Developed & Maintainance by i2soft